কাঠালের বিচির মজার মজার রেসিপি

0

কাঁঠালের বিচির ভর্তা

কাঁঠালের বিচি খুবই জনপ্রিয় ও পুষ্টিকর একটি  খাবার, কাঁঠালের বিচি  রান্না ও ভর্তা করে খাওয়া যায়। খুবই সহজ পদ্ধতিতে কাঁঠালের বিচির ভর্তা তৈরী করা যায়। তাহলে আসুন দেখি নেই কাঁঠালের বিচির রেসিপি।

প্রথমত, কাঁঠালের বিচি ভর্তা করতে যা যা লাগবে শুকনো কাঁঠালের বিচি ২০ থেকে ৩০ টা, মাঝারি সাইজের পেঁয়াজ ১টা, শুকনা মরিচ, ধনেপাতা কুচি,লবন  ও সরিষার তেল নিবেন স্বাদ ও রুচি মত।

প্রণালী:

অল্প তাপে শুকনো তাওয়াতে কাঁঠালের বিচিগুলোকে মচমচে করে ভাজতে হবে অনেকক্ষন। খেয়াল রাখতে হবে, বিচিগুলো যাতে পুড়ে না যায়। ভাজা হয়েছে কিনা নিশ্চিত করতে একটা কাঁঠালের বিচি খেয়ে দেখবেন। ভালো মতো মচমচে ভাজা হলে, কড়াই থেকে নামিয়ে নিন। এবং একটু ঠান্ডা হলে খোসা ছাড়িয়ে নিন।

এরপর বিচিগুলোকে মিহি করে গুড়া করতে হবে। তারপর  পেঁয়াজ কুচিগুলোকে সরিষা তেলে ভাজতে হবে। এরপর একে একে কাঁঠালের বিচির গুড়া, শুকনা মরিচ গুড়া, লবন দিয়ে ২-৩ মিনিট ভাজতে হবে। তারপর  কড়াই থেকে নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন। হয়ে গেল কাঁঠালের বিচির মজাদার ভর্তা। এবার ধনেপাতা কুচি দিয়ে পরিবেশন করার পালা।

১ মিনিটে কচুর লতি পরিস্কার করার সহজ উপায়

শুটকী দিয়ে কাঁঠালের বিচির ভর্তা:

আপনি চাইলে শুটকি মাছ দিয়েও্র কাঠালের বিচির ভর্তা করতে পারেন । এটিও খুবই সহজ একটি রেসিপি। হয়ত অনেকেই এটি খেয়ে থাকবেন। যেহেতু এখন কাঁঠালের বিচি খুব সহজেই পাওয়া যাচ্ছে, তাই চাইলেই ঝটপট এটি বানিয়ে খেতে পারবেন।

উপকরণ:

  • কাচকি মাছের শুটকী ৫০ গ্রাম
  • রসুন কুচি হাফ কাপ
  • পেঁয়াজ কুচি ৩-৪ টেবিল চামচ
  •  তেল পরিমাণ মতো
  • কাঁচা মরিচ ৬-৭ ৬ টি
  •  লবন স্বাদ মতো
  •  হলুদ গুঁড়ো ১ চা চামচ
  • মরিচ গুঁড়ো ১ চা চামচ
  •  কাঠালের বিচি
  • আলু ১ টি

একমাত্র মৃত্যু ব্যতীত সকল রোগের মুক্তি রয়েছে কালোজিরাতে

প্রাণালী:

প্রথমে একটি শুকনো প্যানে কাচকি মাছের শুঁটকী গুলো দিয়ে দিতে হবে। হালকা আঁচে শুঁটকী গুলো লাল লাল করে ভেজে নিতে হবে,যেহেতু কাচকি মাছ অনেক ছোট তাই আঁচ বেশি হলে পুড়ে যেতে পারে। ভাজা হয়ে গেলে ভেজে নামিয়ে ঠান্ডা করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিতে হবে।

এবার একটি প্যানে তেল নিয়ে রসুন কুচি হাফ পরিমাণ দিয়ে দিতে হবে। কাঁচা মরিচ দিবেন পরিমান মত, তারপর একটু নেড়ে পেঁয়াজ কুচি পরিমান মত। এরপর এগুলো হালকা আঁচে ভেজে নিয়ে পানি দিয়ে দিবেন। তারপর লবন স্বাদ মতো, হলুদ গুঁড়ো পরিমান মত, মরিচের গুঁড়ো ১ চামচের মতো দিয়ে ভালো করে কষিয়ে নিতে হবে।

এরপর শুঁটকী মাছ গুলো দিয়ে হালকা নেড়ে দিতে হবে। এবার কাঁঠালের বিচির খোসা ছাড়িয়ে কুচি কুচি করে কেটে দিন। চাইলে মাঝারি সাইজের একটি আলুও কেটে দিতে পারেন। আলু দিয়ে শুঁটকীতে আঠালোভাব আসে। যেটা কাঁঠালের বিচির সাথে আসবে না। এরপর এগুলো একটু নেড়ে হালকা আঁচে কিছু সময় দমে রাখতে হবে। এরপর পরিমাণ মতো পানি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে যাতে আলু ও কাঁঠালের বিচি ভালবাবে সেদ্ধ হয়। কিছু সময় নেড়ে চেড়ে পানি শুকিয়ে ভুনো ভুনো করে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে মজাদার কাঁঠালের বিচি দিয়ে শুঁটকী মাছের মজাদার রেসিপি।

১ মিনিটে ছাড়ান ১ কেজি রসুনের খোসা!

কাঁঠালের বিচির চিংড়ি ভর্তা

উপকরণ:

  • কাঁঠালের বিচি ১ কাপ
  • চিংড়ি মাছ ১ কাপ
  • শুকনা মরিচ ৭-৮টি
  • রসুন কোয়া ২টি
  • হলুদ আধা চা চামচ
  • লবণ স্বাদ অনুসারে
  • সরষের তেল ২ টেবিল চামচ
  • পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ

প্রণালী:

কাঁঠালের বিচির উপরের অংশ ছিলে ভেতরের অংশ ঘষে পরিষ্কার করে নিতে হবে। চিংড়ি মাছ ভালভাবে বেছে পরিষ্কার করে হলুদ ও লবণ দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে হবে। এবার কাঁঠালের বিচি খুব ভালো করে সেদ্ধ করতে হবে। অন্য একটি পাত্রে তেল দিয়ে শুকনা মরিচ ভেজে তুলে ওই তেল রসুন-পেঁয়াজ দিয়ে নরম করে ভেজে চিংড়ি দিয়ে একটু নাড়াচাড়া করে নামিয়ে নিতে হবে। এবার বিচি পাটায় বেটে নিয়ে চিংড়ি মাছ ছেঁচে আধা ভাঙা করে তেল পেঁয়াজসহ সব একসঙ্গে মাখিয়ে ভর্তা তৈরি করতে হবে। এবার আপনার পরিবেশন করার পালা।

কাঁঠালের বিচির মুরগি রেসিপি

উপকরণ:

  • কাঁঠালের বিচি আধা কাপ
  • মুরগি অর্ধেক
  • আদা বাটা, রসুন বাটা, জিরা বাটা, মরিচ বাটা, হলুদ ১ চা চামচ করে
  • এলাচ ২টি
  • দারচিনি ২ টুকরো
  • লবণ পরিমান মত
  • পেঁয়াজ মোটা করে কাটা আধা কাপ
  • সরষের তেল স্বাদমত
  • পেঁয়াজ বেরেস্তা ১ টেবিল চামচ মত

প্রণালী:

মুরগির সঙ্গে পেঁয়াজ বেরেস্তা বাদে সব মসলা মাখিয়ে চুলায় কষাতে হবে। কাঁঠালের বিচি আলাদা সামান্য হলুদ দিয়ে সেদ্ধ করে নিন।মুরগি কষানো হয়ে গেলে তার মধ্যে কাঁঠালের বিচি দিয়ে আরও কিছুক্ষন কষাতে হবে। এবার পরিমান মত পানি দিয়ে জ্বাল দিতে হবে। জ্বাল হয়ে গেলে মাখা মাখা হলে পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে নামিয়ে নিতে হবে। এবার আপনার পরিবেশন করার পালা।

Share:
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *