*অজান্তে প্রস্রা’ব ঝরে পড়া রোধে ব্যায়াম*

*নিজের অজান্তে প্রস্রাব ঝরে পড়া বা প্রস্রাব ধরে রাখতে না পারা এটি কোনো রোগ নয়, এটি আসলে রোগের উপসর্গ। রোগের এই লক্ষনটি বয়স্কদের জন্য বিব্রতকর একটি সমস্যা। পুরুষদের থেকে মহিলারা এই সমস্যায় বেশি ভোগেন। মহিলাদের ক্ষেত্রে মাসিক, জরায়ু ফেলে দেওয়া, গর্ভধারণ, সন্তান প্রসব করা ইত্যাদি কারণে ’পেলভিক ফ্লোরের’ মাংস’পেশি দুর্বল ও অনেকের ক্ষেত্রে নিচের দিকে ঝুলে পড়তে পারে। এসব বিভিন্ন কারণে এ সমস্যাটি দেখা দিতে পারে। পুরুষদের ক্ষেত্রে  বয়স বাড়ার সাথে সাথে ’মূত্রথলি ও ’মূত্রনালির পেশির দুর্বলতা দেখা দেয় এবং প্রস্রাব ধরে রাখার ক্ষমতা হ্রাস পায়।*

 

এর থেকে সমাধানের উপায়?

ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। ধূমপান ত্যাগ করুন এবং সুস্থ খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলুন। ’আঁশযুক্ত খাবার বেশি খান। সমস্যা কমাতে নিয়মিত বিভিন্ন ধরনের ব্যায়াম ও ইলেকট্রি’ক্যাল স্টিমুলেটরের’ মাধ্যমে পেলভিক ফ্লোরের মাংসপেশি শক্তিশালী করে চার থেকে ছয় সপ্তাহের মধ্যে এ ধরনের সমস্যা অনেকটা কমানো সম্ভব।

এছাড়াও জেনে রাখুন কিছু ব্যায়ামঃ

*প্রথমে একটি চেয়ারে বসুন, মেরু’দণ্ড সোজা রেখে একটু সামনের দিকে ঝুঁকে বসুন। এবার প্র’স্রাব ধরে রাখার জন্য দরকারি মাংসপেশি’গুলো সংকুচিত করুন, এই অবস্থায় পাঁচ থেকে দশ সেকেন্ড ধরে থাকুন। এবার সংকুচিত মাংস’পেশি ছেড়ে দিন, পুরো প্রক্রিয়াটি ধশ থেকে পনেরো বার এবং দিনে চার বার নিয়মিত করতে থাকুন।*

*একটি শক্ত বিছানায় চিত হয়ে শুয়ে দুই হাঁটু ভাঁজ করুন, এবার হাঁটুর ফাঁকে একটি ফুটবল রেখে এতে চাপ দিন এবং পাঁচ সেকেন্ড ধরে রাখুন আর ছাড়ুন। এই পুরো প্রক্রিয়াটি দশ থেকে পনেরো বার এবং দিনে চার বার নিয়মিত করতে থাকুন।*

*আরেকটি পদ্ধতি, আবারও সোজা চিত হয়ে শুয়ে দুই হাঁটু ভাঁজ করুন। এবার কোমর ওপরের দিকে ওঠান এবং পাঁচ সেকেন্ড ধরে রাখুন এবং ছাড়ুন, এটিও দিনে এবং দিনে চার বার নিয়মিত করতে থাকুন এবং প্রতিবার দশ থেকে পনেরো বার করুন।*

*প্রস্রা’বের বেগ শুরু হওয়ার দশ মিনিট পর প্রস্রা’ব করার অভ্যাস এবং প্রস্রাব করার পরও কিছু সময় বসে থেকে অপেক্ষা করে আবার প্র’স্রাবের চেষ্টা করা।*

Share:

Author: admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *